জেলা পরিষদ পরিচিতি

জেলা পরিষদ হল স্হানীয় স্বায়ত্বশাসন সংস্হার সবোর্চ্চ ধাপ। ১৮৮৫ সনের Local self Govt. Actএর আওতায় জেলা বোর্ড সৃষ্টিহয়।এর পর ১৯৫৯ সনে ডিষ্টিক্ট বোর্ড এর স্থলে ডিষ্টিক্ট কাউন্সিলগঠন করা হয়।১৯৭৬ সনের ‘স্থানীয় সরকার আইনে’উহা জেলা পরিষদনামে অভিহিত হয়।১৮৮৫ সনের Local self Govt. Actএর আওতায় জেলা বোর্ডসৃষ্টির পর পরই ১৮৮৬ সনে যশোর জেলা বোর্ড সৃষ্টিএবং ০৩রা মার্চ ১৯১৩ খ্রিঃজেলা বোর্ড ভবন নির্মিত হয়। শুভউদ্বোধন করেনতৎকালিনDistrict Magistrate J.H.LINDSAY ESQ M.A. ICS।

১৯৬৫ সালে জেলা পরিষদ গণমিলনায়তন মৌলিক গণতন্ত্রী ভবন (বি ডি হল) নির্মিত হয়। ২৫শে শ্রাবন ১৩৭৪ ভবনের উদ্বোধন করেন ডেপুটি কমিশনার জনাব কামাল উদ্দিন চৌধুরী সি, এস, পি। জেলা বোর্ড স্বায়ত্বশাসিত সংস্থা হলেও কার্যত ছিল সরকার কর্তৃক নিয়ন্ত্রিত। মহাকুমা স্তুরের লোকাল বোর্ড, জেলা বোর্ডের সদস্য মনোনয়ন দিত। ভাইস-চেয়ারম্যান বোর্ডের সদস্যের মধ্যে থেকে সদস্য দ্বারা নির্বাচিত হতেন। জেলা বোর্ডের সদস্য সংখ্যা ০৯ জনের কম ছিল না। ১৯২০ সালের পর প্রত্যক্ষ নির্বাচনের ব্যবস্থা হয় এবং কার্যকাল নিরুপিত হয় ০৩ বছর। ১৯২০ সালের আগ পর্যন্ত জেলা বোর্ড ছিল জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের একটি দপ্তর। পরবর্তীকালে তিনস্তর বিশিষ্ট স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান দ্বি-স্তরে পৌছে। ১৯৮২ সালে উপজেলা ব্যবস্থা প্রবর্ত্তনের ফলে বর্তমানে ০৩ স্তরে চালু আছে। বর্তমান জেলা পরিষদ আইনে ৬৭টি ধারা, ধারার অধীন একাধিক উপধারা ছাড়াও তিন তফছিল পরিষদের বাধ্যতামূলক এবং ঐচ্ছিক কার্যাবলী নির্দিষ্ট করা আছে। বর্তমানে যে আইন বলে জেলা পরিষদ পরিচালিত হয়ঃ জেলা পরিষদ আইন, ২০০০ (২০০০ সনের ১৯নং আইন)